বাবা গিরী ১২

এরপর দুয়া, সকাল থেকে রাত পর্যন্ত যত কাজ করবে সে, সেইসব কাজের আগে পরের দুয়া, নামাজের পরের দুয়া, সকাল সন্ধার দুয়া ইত্যাদি সমস্ত দুয়া যেন তার মুখস্থ হয় আর সে যেন তা পালন করে। আদব ও দুয়া ছাড়া নামাজ ও রোজার প্রতিও যেন পুরোপুরিভাবে অভ্যস্ত হয়ে পরে। কোরআন ও আল্লাহর জিকিরের প্রতি যেন খুব যত্নশীল…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ১১

আমরা মুলত কি করি? স্কুলের বই এর ছড়া কবিতা বকে ঝকে মুখস্ত করাই, আর এইসব আদব কায়দা গুলো শুধু হুকুম করি, “আই এটা এভাবে করো,আই ডান হাতে খাও” আসলে হওয়ার কথা ছিলঃ “বাবা ডান হাতে খাও? রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, যে বাম হাতে খায় ও পান করে শয়তান ও তার সাথে খায়, তুমি…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ১০

সন্তানের সাত বছর হলে তাকে নামাজের প্রতি খুব বেশি যত্নশীল করে তুলবেন,নামাজের নিয়ম কানুন ও দুয়া গুলো শিখাবেন। মায়া দেখিয়ে ফজরে ঘুম পাড়িয়ে রাখবেন না। আমার এখনো মনে পরে আমার এই বয়সে আমার বড় ভাই ওর বয়স তখন ১০/১১, নিজে উঠতো আমাকেও উঠাতো তাহাজ্জুদের সময়, এরপর সামনে দাঁড়িয়ে ইমামতি করতো, আর আমি ফাকিবাজ সিজদায় ঘুমিয়ে…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ৯

৪ বছরের পর বাচ্চাদের কে দুয়ার শিক্ষাটা বাড়িয়ে দিতে হবে, এবার সকাল সন্ধার কম পক্ষে সহজ দেখে ২/৩ টা করে দুয়া শিখানো, আরবি হুরুফ পরিচিতি, সুরা ফতিহা সহ আমপারার ছোট সুরাহ গুলো মুখস্থ করানো, এইসব শিক্ষার পাশাপাশি এইসবের ফযিলত গুলোও শিখানো ও ঘন ঘন এইসবের ব্যপারে জিগেস করে বিষয় গুলো তার ঠোটস্থ করে দেওয়া। এবং…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ৮

(ক) ভাগ নিয়ে আলোচনা করা যাক। প্রথমে আমরা কাজের তালিকা তৈরি করবো, এরপর আমরা কাজ গুলো কে ভাগ করে নিবো, আর কাজ গুলো ভাগ করবো বয়স হিসেবে। যেমন দেড় থেকে আড়াই বছর পর্যন্ত বাচ্চা কে সুন্দর কথা বলা শিখানো, কোন ভুল কাজ করলে ইন্নালিল্লাহ (বাচ্চাদের বুলি- মাথায় হাত দিয়ে ইন্নালিল্লাহ) শিখাবো (অর্থঃ আমরা তো আল্লাহরই),…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ৭

পর্ব-৪ “সন্তানের হক” (প্যারেন্টিং সিরিজ) ************* (৪)- সন্তানের সামনে ঘরের অন্য সদস্যদের আচরণ —-v—- বলাই বাহুল্য যে এই আচরণ হতে হবে অনেক উত্তম। বাচ্চার সামনে কখনো ঝগড়া, উঁচু আওয়াজে কথা বলা, কারো নামে খারাপ বলা ইত্যাদি থেকে বিরত থাকবেন। একটা সন্তানের শিক্ষার জীবন শুরু হয় ৭/৮ মাস বয়স থেকেই, এই সময় থেকেই সে বুঝতে শিখে,…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী 6

সময় দেওয়ার পাশাপাশি সন্তান কে অনেক বেশি আদর স্নেহ করতে হবে, বর্তমানে মায়েদের সন্তান কে কন্ট্রোল করার অভিনব পদ্ধতি আমাকে অবাকই করে,সন্তান কে খাওয়ানোর সময়, কান্না করলে তখন বা নিজে কোন কাজে বিজি থাকলে ব্যাস টিভি চালু করে দেন না হয় মোবাইল হাতে ধরিয়ে কোন ভিডিও অন করে দেন, এতে সন্তান চুপ হয়ে যায় এবং…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ৫

জন্ম দেওয়ার পর সন্তানের হক হচ্ছে তাকে সময় দেওয়া, আদর স্নেহ মমতা দেওয়া, তাকে সাধ্যমত সুখাদ্য খাওয়ানো,তাকে সাধ্যমত সুন্দর পরিবেশ দেওয়া, তাকে উত্তম আদব আখলাক শিক্ষা দেওয়া, তার সামনে প্রতিটা মানুষ কে উত্তম আচরন করা। #প্রথমত তাকে সময় দেওয়া,এই সময়টা তাকে সারাক্ষনই দিবেন, আপনি মা,সে আপনার সন্তান, আপনাদের এই মমতাময় সম্পর্কে আর কাউকে দখল করতে…

আরো পড়তে,,,

বাবা গিরী ৪

সপ্তম দিনে নাম রাখা, মাথা মুণ্ডন করা ও আকিকা করা। নাম রাখার বেলায় আমরা যা করি তা হলো, খুব সুন্দর নাম রাখি, ইসলামিক,অর্থবহ,কিন্তু ডাক নাম রাখি টিনকু, পিনকু চিনকু টাইপ। এবং সারাজীবন এই নাম ধরেই ডাকা হয়, আর ভাল নাম গুলো শুধু কাগজে কলমেই থেকে যায় , আমরা বেখবর যে একটা ভাল নাম রাখা ও…

আরো পড়তে,,,